আবার একসাথে মেহজাবিন-চঞ্চল

এবার ঈদে বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী ও অভিনেত্রী মেহজাবীন চৌধুরীর অভিনয়ে নির্মিত হয়েছে টেলিছবি ‘সুর বিবাগী’

Mehazabien and Chanchal Pair Up

Mehazabien and Chanchal Pair Up
Source: Alokitobangladesh

বৃন্দাবন দাসের রচনায় নাটকটি নির্মাণ করেছেন সাইদুর রহমান রাসেল। গল্পটি রোমান্টিক ধরনের। এতে ভাদু গায়েনের চরিত্রে চঞ্চল চৌধুরী এবং সরলা-মনিকা চরিত্রে মেহজাবিন অভিনয় করেছেন।এ গল্পে দেখা যায়, ভাদু গায়েন বাংলাদেশেরই কোন গ্রামের গায়েন। গান গেয়েই সে দিন কাটায়।

একদিন এক ধনাঢ্য ব্যক্তির বাড়ির আসরে গান গাইতে যায় ভাদু গায়েন। সেই ব্যক্তির মেয়ে (মেহজাবীন চৌধুরী) সরলা গায়েনের প্রেমে পড়ে যায়। সরলাকে তার বাবা যেদিন বিয়ে দিতে চায় সেদিন বিয়ের আসর থেকে পালিয়ে ভাদু গায়েনের কাছে চলে আসে সরলা। কিন্তু বিয়ের পর সরলা দেখতে পায় ভাদু সবসময় গান নিয়েই ব্যস্ত থাকে। এক সময় সরলার কোল জুড়ে আসে একটি মেয়ে। সেই মেয়ের জন্ম নেয় সরলার বাবার বাড়িতে। এক সময় সরলা মারা যায়। ভাদু তার মতোই গান গেয়ে জীবন কাটায়। সে জানেনা তার মেয়ে কেমন আছে। এক সময় ভাদু গায়েনের মেয়ে মনিকা দেশের সূনামধন্য শিল্পী হয়। তখন মনিকা তার বাবাকে খুঁজতে বের হয়।

টেলিছবিটিতে অভিনয় নিয়ে চঞ্চল চৌধুরী বলেন,

ঈদ মানেই যে হাসির নাটক দর্শকের জন্য নির্মাণ করতে হবে এমন নয়। দর্শকের বিনোদনের জন্য একেবারেই মানহীন নাটক নির্মাণ করা ঠিক নয়। দর্শক সবসময়ই ভালো নাটক দেখতে চান। দর্শককে ভালো গল্পের মধ্যদিয়ে সমাজের নানান দিক তুলে ধরতে হবে নির্মাতাদেরকেই। দর্শক সবসময়ই একটি পরিপূর্ণ গল্প চায়। সুর বিবাগী বৃন্দাবন দা রচিত ঠিক তেমনই একটি গল্প। মেহজাবিন খুব ভালো অভিনয় করে। বড় ছেলে নাটকে তার অভিনয় আমাকে মুগ্ধ করেছে। আর এখনতো আরও বেশি সিরিয়াস।

( আরো পড়ুনঃ ভালোবাসার কাহিনী দিয়ে তৈরি ‘কাছে থেকো’ )

মেহজাবিন বলেন,

এই নাটকে আমি দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছি। একটি সরলা এবং অন্যটি সরলার মেয়ে মনিকা। টেলিছবিটির গল্প ভালো লেগেছে। চঞ্চল ভাই অনেক বড় মাপের একজন অভিনেতা। তার সঙ্গে কাজ করাটা আমার জন্যও অনেক ভালো লাগার। আজ তার জন্মদিন। জন্মদিনে দাদাকে অনেক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

আগামী ঈদে চ্যানেল আইতে প্রচার হবে ‘সুর বিবাগী’ টেলিছবিটি। এদিকে জন্মদিন উপলক্ষে আজ কোন শুটিং রাখেননি চঞ্চল চৌধুরী। পরিবারের সঙ্গেই সময় কাটবে তার। চঞ্চল ও মেহজাবীন প্রথম একসঙ্গে সিমিথ রায় অন্তরের নির্দেশনায় ‘দোসর’ নাটকে অভিনয় করেন। সর্বশেষ তারা দু’জন গত বছর ঈদে সাজ্জাদ সুমনের নির্দেশনায় ‘মুক্তা ঝরা হাসি’ নাটকে অভিনয় করেন।

One Comments

Leave a Reply